Pancgabhooteshu

বলেশ্বর নদের পাশে আমার বাড়ি। ফারাক্কা বাঁধের পর বলেশ্বর ধীরে ধীরে চোখের সামনে মরে যাচ্ছে! সেই কষ্ট আমাকে অস্থির করে তোলে। দীর্ঘ পনেরো বছর আমি আর্থ-সামাজিক বিষয়ে নানান কিসিমের গবেষণা করেছি। গবেষণা কাজে গোটা বাংলাদেশের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত চষে বেড়িয়েছি। নানান বর্ণ ও শ্রেণীপেশার মানুষের সঙ্গে ওঠাবসা করেছি। নানান কর্ম, সংস্কৃতি, আচার, অনুষ্ঠান ও ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচিত হয়েছি। সেসব অভিজ্ঞতা আমার গল্পে নানাভাবে ভিন্ন ভিন্ন মাত্রায় উঠে আসে। মাটি ও মানুষের জীবন সংগ্রামের সেসব গল্প, তাদের নির্ভেজাল হাসি-তামাশা, ঠাট্টা-মশকরা, কৌতুক-বিনোদন, সুখ-দুঃখের চিরায়ত বয়ান ঠিক ভাষার যাদুতে বন্দী করা যায় না। তবু মানুষের মুখ ও মুখোশের আড়ালের সেই না বলা কথা দ্বিধাহীনভাবে যেসব পাঠকের অন্তরে অনুরণন জাগায়, তাদের জন্যই আমার এবারের নিবেদন ’‘পঞ্চভূতেষু’।

‘পঞ্চভূতেষু’ আমার পঞ্চম গল্প সংকলন। সংকলনে মোট সাতটি গল্প রয়েছে। রূপ, রস, গন্ধ, শব্দ, স্পর্শ যারা বুঝতে পারেন, বাংলাদেশ ও বাংলা ভাষাকে যারা ভালোবাসেন, বাংলার মাটি ও মানুষের জীবন গাঁথায় যাদের অন্তরে নিরন্তর আবেগ জাগায়, তাদের ‘পঞ্চভূতেষু’ হয়তো নতুন খোড়াক যোগাবে।

রেজা ঘটক    
ডিওএইচএস বারিধারা, ঢাকা
১২ জানুয়ারি ২০১৪